আর্ট অফ ইফেক্টিভ লিভিং এর মিড পরীক্ষা দেয়ার পর আমার কিছু অনুভুতি…

আজকের পরীক্ষা দিয়ে আমার কিছু ব্যক্তিগত অনুভূতি যা শেয়ার করা প্রয়োজন বলে মনে করছিঃ

১। প্রাইমারী স্কুল থেকে শুরু করে ভার্সিটি লাইফে আজ পর্যন্ত ফার্স্ট এমন একটা এক্সাম দিয়েছি যাতে কোনো রকমের টেনশন কাজ করে নাই…হয়ত টেনশন যা ছিল সেটা এটা ভেবে যে Part-A এর প্যাসেজ সময়ের মধ্যে পড়ে শেষ করতে পারবো তো ?

২। নিজের অব্যক্ত কথাগুলো জীবনে প্রথম কোনো পরীক্ষার খাতায় তুলে ধরতে পেরেছি…যারজন্য যারপরনাই আমি আনন্দিত

৩। নিজের মনের অন্তঃকোণে যা ছিল তা সত্যিসত্যিই নিংরে তুলে ধরতে পেরেছি…উদাহারণস্বরূপঃ ব্যাপার টা এমন হয়নি যে আমি ইঞ্জিনিয়ার হতে চাই কিন্তু এক্সাম এর খাতায় মাই এইম অফ লাইফের কোয়েশ্চানের উত্তরে কোনো এক বই থেকে মুখস্ত করে লিখে দিয়ে এসেছি আমি ডাক্তার বা অন্য কিছু হতে চাই

৪। সবশেষ কথা পরীক্ষা টা এঞ্জয় করেছি…কিছু সুখী মুহূর্ত পরীক্ষার হলে পার করেছি ভয় শঙ্কাহীন…যা জীবনের অনেক বড় একটা পাওয়া হয়ে থাকবে

ধন্যবাদ স্যার 🙂