Category Archives: আক্ষেপ

প্রচন্ড কস্ট হচ্ছে

সপ্তাহখানেক ধরেই এক্সামের আগে দিয়ে জর… পরীক্ষাও দিলাম জর নিয়ে…শেষ পরীক্ষাটাও একদমই ভাল হয় নায়… হবে কিভাবে ? মাথার ভেতর যে গত কয়েকদিন যাবত অসম্ভব পেইন হচ্ছে….অনেক চেস্টা করেছি পড়া ভালভাবে শেষ করতে কিন্তু মাথা আর কাজ করতে চায় না…এগুলাতো আবার কারো সাথে শেয়ার করার অবস্থা নাই…কার এত ঠেকা পরসে!…..আমার মনে হয় আমার পুরাপুরি রেস্ট এ চলে যাওয়া দরকার জীবনের সব কিছু থেকে……আগে জীবনের এই প্রেশার কে মানিয়ে নিতে জিম করতাম প্রচুর, বডিবিল্ডিং ডট কমে অনেকের মোটীভেশনাল হেলথি লাইফস্টাইল দেখে মেইন্টেন করার চেস্টার করতাম নিজের ভেতরেও, আমেরিকান ডায়েট ফলো করতাম, তাদের ফিটনেস লাইফস্টাইল আমার অনেক ভাল লাগে সবসময়ই, সপ্তাহে নিয়মিত সাইক্লিং এর জন্য একটা দিন রাখতাম  পাশাপাশি…এখন সেই সময়টাও পাইনা…কি নিয়ে এই জীবনে বাচবো আমার জানা নাই…যেই জীবন জীবনের সব ইচ্ছারই মৃত্যু দিয়ে দিয়েছে সেই জীবনের আদৌ কি কোনো দরকার আছে ?..এর উত্তর আমার জানা নাই…. ছোট এই জীবনে গত চারবছর নিশ্চিন্তে একটা রাতও ঘুমাতে পারিনাই অ্যাকাডেমিক প্রেশারে…সব কিছু থেকে বিদায় দিয়ে দিবো একদিন…কেবল কায়িক পরিশ্রমে সময় দিব প্রচুর…জিম করব সারাদিন…পুরোনো স্ট্রেংথ ফিরিয়ে আনবো ইনশাআল্লাহ

আক্ষেপ :(

৪ বছরের ভার্সিটি লাইফ শেষের দিকে হলেও বের হয়ে একটা আক্ষেপ হয়ত থেকে যাবে…বাংলাদেশের অধিকাংশ প্রাইভেট/পাবলিক ভার্সিটি গুলোর সিএসই বা এই ধরনের সাবজেক্ট গুলোতে আস্যাইনমেন্ট,কুইজ,প্রেজেন্টেশান ইত্যাদি ইত্যাদি যতটা জোর দিয়ে করানো হয় সেটা ঠিক আছে কিন্তু এই সিস্টেম এ প্রোগ্রামিং এর লজিক ডেভেলপমেন্ট এ ঠিক ততটা জোর দেয়া হয় না…যা করার নিজেকে এই সিস্টেম এর বাইরে গিয়ে করতে হয়…কিন্তু জগদ্দল পাথরের মতন এই সিস্টেম ঘাড়ের ওপর চেপে বসে থাকে…না এইটা করতে দেয় না ঐটা আবার অনেকের মতে এই সিস্টেম এর মধ্যে কিছু করে দেখাতে পারলা না মানে তুমি খারাপ…আমার প্রশ্ন হল সবাইকেই কেন একই সিস্টেম এর মাঝে চলতে হবে ? যার যেইটা ভাল লাগে তাকে সেটার ভিত্তিতে কেন মার্কিং দেয়া হয় না ? ……এই দেশের এডুকেশান সিস্টেম টা যদি আরেকটু উন্নত হইত তাইলে আর কিছু চাইতাম না… 🙁