Category Archives: পড়াশোনা

পরীক্ষার প্রস্তুতির শুরু —–

পরীক্ষার প্রস্তুতির শুরু ——–
By—–aryan ahmed
assistant commissioner of taxes

অমুক সার্কুলার কবে হবে ? এখন পড়া হচ্ছেনা, সার্কুলার দিলে পরে স্টাডি শুরু করব, আমার কি চান্স হবে, প্রিলি নাকি অনেক কঠিন পরীক্ষা এসব বিষয় কখনোই প্রিলিমিনারি প্রস্তুতির সময় ভাবতে হয় না । আপনি আপনার মত স্টাডি শুরু করে দিন, বসে থাকবেন না, স্টাডি কোন না কোন ভাবে কাজে আসেই । কোন অর্জিত জ্ঞানই বিফলে যায়না । এখন কাজে না এলে অন্যত্র কাজে আসে, এক পরীক্ষায় কাজে না এলে অন্য পরীক্ষায় সাহায্য করে । আপনাকে আপনার কাজের দিকে বেশি নজর দিতে হবে । কাজ করার পূর্বেই ভোগের আয়োজনের চিন্তা করলে কিভাবে হবে ? নির্দিষ্ট লক্ষ্য নিয়ে ছুটে চলুন না ? আজ থেকেই স্টাডি শুরু করে দিন । এমন একটা রুটিন করে ফেলুন – যাই হোক না কেন , প্রতিদিন নিজের মত কিছু সময় অবশ্যই স্টাডি করবেন । এটা আপনার জন্য কোন সময় ভালো হয় নিজে গুছিয়ে নিন, অন্যের দিকে তাকানো বাদ দিন । সবার অবস্থা ও পারিবারিক অবস্থান এক নয়, কাজেই অন্যের সাথে তাল মেলালে আপনার চলবে না । নিজের দিকে এবং নিজের পরিবারের দিকে তাকান , নিজেকে বেশি সময় দিন । সফলতার কোন নির্দিষ্ট সংজ্ঞা নেই, কোন না কোনভাবে দেখবেন ঠিকই ভালো কিছু করেছেন । শুধু একদিকে হাঁ করে তাকিয়ে না থেকে বিকল্প কিছুরও প্ল্যান করে রাখা বুদ্ধিমানের কাজ । আজ থেকেই রুটিন একটা করে স্টাডিতে নেমে যান, আগেও বলেছি বিগত বছরের প্রশ্নগুলো আপনার জন্য ভালো একটা গাইডলাইন ।

যারা একেবারে নতুন তারা বিসিএস প্রিলির জন্য এভাবে সময় ভাগ করে নিয়ে স্টাডি শুরু করতে পারেন —
বাংলা – ১০ দিন
ইংরেজি – ১০ দিন
গনিত – ৭ দিন
বিজ্ঞান – ৭ দিন
সাধারণ জ্ঞান – ১৫ দিন ( ৮ দিন বাংলাদেশ এবং ৭ দিন আন্তর্জাতিক )
অন্যান্য – ৭ দিন

এভাবে এই সময়ের মাঝে প্রতিটি বিষয়ের যা পারবেন মোটামুটি ভাবে স্টাডি করুন , এরপর অন্য বিষয় শুরু করবেন । শুধুমাত্র একটি বিষয় নিয়ে পড়ে থাকলে অন্য বিষয় গোছানো হবেনা । কোন নির্দিষ্ট বিষয়ে স্পেশালিষ্ট হবার চেয়ে প্রতিটি বিষয়ে মোটামুটি দক্ষ হওয়াটা আপনার জন্য খুব জরুরী । শুরুতে বিগত বছরের প্রশ্নগুলো দেখে নিতে পারেন । একবার সব বিষয় মোটামুটি স্টাডি শেষ হলে এরপর আবার ১ দিন করে সময় নিয়ে ঝালাই করে নিন প্রতিটি বিষয় । পরীক্ষার আগের ৩ দিন শুধু ডাইজেস্ট টাইপ বই বা সালতামামি দেখে যেতে পারেন । নিজের ওপর আস্থা রাখবেন । সবাই পরীক্ষার হলে সবকিছু পারবে না এটাই স্বাভাবিক, কিন্তু নিজের লব্ধ জ্ঞান থেকে কতটুকু কাজে লাগাতে পারলেন সেটাই দেখার বিষয় । স্টাডি তো কমবেশি সবাই করে, কিন্তু সবার প্রয়োগ তো আর একরকম হয়না । অযথা অনেক বেশি স্টাডি না করে শুরু থেকে গুরুত্বপূর্ণ টপিকগুলো আগে পরে ফেলার চেষ্টা করবেন । সময় নষ্ট না করে স্টাডি চালিয়ে যান । পড়ার সময় মোবাইল এ কথা বলা , নেট এ থাকা , গান শোনা , টিভি দেখা এসব বাদ দিয়ে জাস্ট স্টাডি করুন । অন্য কোন দিকে যেন concentration না থাকে ।

আমরা বেশির ভাগই বাস্তবতাকে মেনে নিতে পারিনা, নিজের maximum চেষ্টা করতে হবে, passion dedication অনেক বেশি থাকতে হবে , শুধু বসে বসে স্বপ্ন দেখলে কিন্তু ভালো পজিশনে যাওয়া খুব কঠিন হবে । সময়মত সময়ের সঠিক ব্যবহার করতে হবে । সময় চলে গেলে কিন্তু দেখবেন সময়ের প্রবাহ অনেককেই সাফল্যের দ্বারপ্রান্তে টেনে নিয়ে গেছে কিন্তু আপনি সেখানেই পড়ে রয়েছেন । এমনটি যেন না হয় । কে কখন স্টাডি শুরু করলো কি করলো না এসব নিয়ে মাথা না ঘামিয়ে আপনি নিজেকে প্রস্তুত করুন । নিজেকে বেশি সময় দিলে দেখবেন নিজেকে প্রস্তুত করতে খুব বেশি সময় লাগছেনা । যারা নিজের ওপর আত্মবিশ্বাস রেখে নিজের কাজে অটল থাকে এবং অল্পে হতাশ না হয়ে ধৈর্য রাখে তারা কোন না কোনভাবে জীবনে বড় পজিশনে পৌঁছাবেই । যেখানেই যে বিষয়েই স্টাডি করেন না কেন নিজের চেষ্টা , আত্মবিশ্বাস আর ধৈর্য থাকলে আপনি সফল হবেনই । অন্যের দিকে তাকাবেন না আর গুজবে কান দেবেন না, তাহলে আপনার জন্য সফল হওয়াটা অনেকটা সহজ হবে । প্রতি মুহূর্তে নিজেকে upgrade করার চেষ্টা করুন । অন্য কিছুতে সময় কম দিয়ে নিজেকে আর বইএর মাঝে বেশি সময় দিন । চেষ্টা চালিয়ে যান । সফল আপনিই হবেন । ভালো থাকবেন সবাই . Good luck guys .

এইচএসসি তে যারা এ+ পাবেন অথবা পাবেন না উভয়ের জন্যই

আজকে যারা একটু পরে এইচএসসি তে এ+ পাবেন অথবা পাবেন না উভয়ের জন্যই অনেক শুভ কামনা

যারা পাবেননা তারা পড়াশোনায় আগ্রহ হারায় ফেললে পরে ধরা খাবেন…যেটা একদমই ঠিক হবেনা…এদেশের সমাজ ব্যাবস্থায় বাস্তবতা হইল পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় গুলাতে ভাল সাবজেক্টে চান্স না পাইলে কাছের মানুষজন আপনাকে কুয়ার ব্যাং বলতেও পিছপা হবেনা…..সুতরাং রেজাল্ট দেখে মন একটু খারাপ হইলেও ঘুড়ে দাড়ানোর চেস্টা করা উচিৎ..নেগেটিভ মাইন্ডেড মানুষ জনের কথায় পাত্তা না দিয়ে নিজের গোল এ সেলফ মোটিভেটেড থাকা উচিৎ….আর হতাশ না হয়ে জীবনের বাকি ধাপ গুলা নিয়ে চিন্তা করা উচিৎ…..মরে যাওয়ার চেস্টা করে একমাত্র লুজাররা….বেচে থাকলে ছোট্ট এই জীবনে অনেক কিছুই করার আছে যা আসলে এইচএসসির এই রেজাল্টের উপর নির্ভরশীল নয় ! 🙂