Tag Archives: daffodil international university

এসিএম আইসিপিসি মোটিভেশনাল সেশান

ভার্সিটির প্রথম থেকেই এসিএম কি বুঝার চেস্টা করে আসতেসি…ভার্সিটি লাইফ শেষ হয়ে যাচ্ছে একটু একটু করে কিন্তু এখনও তেমন একটা বুঝে উঠতে পারি নাই…তবে এসিএম নিয়ে এই ধরনের মোটিভেশনাল সেশান গুলোতে থাকার চেস্টা করি…মাথায় কিছু ঢুকলে নিজেকে আমার অনেক ভাগ্যবান বলে মনে হয় তখন…তো গতকাল আমাদের ড্যাফোডিল বিশ্ববিদ্যালয়ের সিএসই ডিপার্টেমেন্ট এর হেড প্রফেসর ড. সৈয়দ আখতার হোসেন স্যারের(https://en.wikipedia.org/wiki/Syed_Akhter_Hossain) আমন্ত্রনে এসেছিলেন পৃথিবীর দ্রুততম জাজিং ইঞ্জিন কোডমার্শালের জনক, মুক্তসফট এর সিইও মাহমুদুর রহমান স্যার…

উনি এসিএম আইসিপিসি ওয়ার্ল্ড ফাইনালিস্ট হিসেবে গতকাল অনেক কিছু শেয়ার করলেন ওনার জীবন থেকে…অনেক কিছু শিখলাম জানলাম… বিকাল ৫ঃ৩০ থেকে শুরু হওয়া এই সেশন রাত ৮ টা অবধি চলল…শেষ বেলায় ভার্সিটির হয়ে আইসিপিসির রিজিওনাল এ পারটিসিপেট করতে যাওয়া প্রোগ্রামিং কন্টেসেটেন্ট রা মঞ্চে দাড়িয়ে….. তারা আমাদের ভার্সিটির গর্ব…কারণ তারা আমাদের ভার্সিটি কে রিপ্রেজেন্ট করেন তাদের শানিত মেধা,তীক্ষ্ণ বুদ্ধি আর মনন দিয়ে…প্রব্লেম সল্যুশান করার মাধ্যমে…তারা আমাদের দেশের ও গর্ব কারণ তাদের কারণে আমাদের লাল সবুজ পতাকা বিভিন্ন জায়গায় শোভা পায় গর্বের সাথে…ইনফরম্যাটিক্স অলিম্পিয়াড গুলোতে আমাদের দেশ এভাবে এগিয়ে যাচ্ছে ধীরে ধীরে… পারটিসিপেন্ট দের সবাই হয়তবা মঞ্চে নেই…তবে তাদের সবাইকে দেখলে নিজেকে এগিয়ে নেয়ার অনুপ্রেরণা পাই…মঞ্চে দাঁড়ানো এদের কেউ হয়ত বা আমাদের শ্রদ্ধেয় বড়ভাই, ব্যাচমেট অথবা ঘনিষ্ঠ বন্ধু অথবা ছোটভাই…আমরা অনেকেই হয়ত তাদেরকে কে চিনিনা রেগুলার কন্টেস্ট করি না বলে কিন্তু তারা নিজেদের এগিয়ে নিয়ে যান প্রতিনিয়ত… বাংলাদেশের প্রত্যেক বিশ্ববিদ্যালয়েই প্রত্যেক ব্যাচেই কিছু সেই মাপের প্রব্লেম সল্ভার থাকেন…তারা সেরকমই

আমি নিজে ভাল প্রব্লেম সল্ভার হতে পারিনাই কিন্তু আমি চাই আমাদের দেশের বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে এই প্রব্লেম সল্ভার এবং কম্পিটিটিভ প্রোগ্রামার এর সংখ্যা টা আরো বারুক…প্রব্লেম সল্ভিং এর গুরুত্বটা আমাদের ছেলে মেয়েরা বুঝুক…একটা ভাল মোবাইল অ্যাপ কিংবা ওয়েব অ্যাপ বানাতে হলে প্রব্লেম সলভ এর যে কোনো বিকল্প নাই এটা যেনো আমরা অনুধাবন করতে পারি…দেরীতে হলেও সরকারীভাবে আমাদের হাই স্কুল পর্যায়ের এনএইচসিপিসি,মেয়েদের জন্য সম্পূর্ণ একটা আলাদা কন্টেস্ট শুরু হয়েছে এটাও অনেক বড় একটা ব্যাপার.দেশের রূট লেভেল থেকে শুরু হওয়া ট্যালেন্ট খুজে বের করার এই উদ্যোগ গুলো ভাল কিছুই নিয়ে আসবে দেশের জন্য…আর ম্যাথ অলিম্পিয়াড,IOI,এসিএম ইত্যাদি ব্যাপার গুলো আমাদের দেশে আরো বেশী করে বৃদ্ধি পাক , মানুষজন ব্যাপার গুলা জানুক এই কামনায় শেষ করছি। 🙂

acm-icpc

রোবোটিক্স ফাইনাল :D

1526436_342311109304567_8516826689226784356_n 10420347_342311275971217_315635105388277881_n

হার্ডওয়ার লেভেল এর প্রোগ্রামিং সম্পর্কে এক ধরনের কৌতুহল কাজ করত সব সময়…সেই সূত্র ধরে  আজকে কালো দাগের লাইন ফলো করে এমন একটা গাড়ি রোবোট এর উপর বেশ কয়েক দিন ধরে চলা ক্লাস এর উপর ফাইনাল হইল …

ছোটোবেলায় আম্মু আব্বু খেলনা গাড়ি কিনে দিতো…সেগুলা ভাংতে ভাল ই লাগত :p…কিন্তু তখন তো বুঝতাম না এমবেডেড সিস্টেম কিংবা মাইক্রোকন্ট্রোলার কি…আর ভেতরে প্রোগ্রামিং ল্যাংগুএজ এ সবকিছু চলে…

যদিও হার্ডওয়ার এর সার্কিট  এর ব্যাপার গুলা একটু টাফ…কিন্তু এটলিস্ট আরডুইনো কিংবা রাস্পবেরি পাই এগুলার কোড লিখে এগুলার সাথে কথা বইলে কিংবা এগুলার সাথে নতুন কিছু জুড়ে দিয়ে ফাউ সময়ে নিজের মনের খোরাক মিটানো খুব সম্ভব !… নতুন কিছু তো শিখলাম নাকি ! 😀